সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন




ঢাবিতে ছাত্রলীগ কর্মীদের হাতে সাংবাদিক হেনস্তা

আউটলুকবাংলা রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২২ ৬:৪০ am
ঢাবি ভিসি মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান du vc Md. Akhtaruzzaman Dhaka university du ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ঢাবি ডিইউ DU ঢাবি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় Dhaka University ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাসে মিলবে ওয়াইফাই The DU residential hall may open in March ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
file pic

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিনা উস্কানিতে এক সাংবাদিককে অকথ্য ভাষায় গালাগাল, শারীরিকভাবে হেনস্তা ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের কর্মীদের বিরুদ্ধে। গত মঙ্গলবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী তাওসিফুল ইসলাম দ্য ডেইলি অবজারভারের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী হিসেবে অধ্যয়নরত।

এ ঘটনায় জড়িত ছিলেন মার্কেটিং বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী তুষার হোসাইন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মুনতাসির মামুন রিফাত এবং ফাইন্যান্স বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সিরাজুল ইসলাম। এরা সবাই মাস্টারদা সূর্যসেন হল ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী। ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অনুগত এই তিনজনই আসন্ন হল কমিটির পদ প্রত্যাশী।

হেনস্তার ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী হল প্রভোস্ট বরাবর গতকাল লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, তাদের অনুসরণ করে আগেই সেখানে উপস্থিত হন ডেইলি অবজারভারের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি তাওসিফুল ইসলাম। তিনি বেরিয়ে আসার সময় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা তার পথরোধ করে পরিচয় জানতে চান। তাওসিফুল ইসলাম নিজের পরিচয় দিলে ছাত্রলীগ পরিচয়ধারী তুষার হুসাইন, মুনতাসির মামুন রিফাত ও সিরাজুল ইসলামসহ কয়েকজন তাকে গালিগালাজ করতে থাকেন, তার উপর চড়াও হন এবং তাকে মেরে হল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেন।

এসময় হল ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক সেখানে উপস্থিত হলে তাদের সামনেই ওই সাংবাদিককে শাসায় এবং তাকে মারার জন্য তেড়ে আসে অভিযুক্তরা।

তবে মূল অভিযুক্ত তুষার এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি বলে মানবজমিনের কাছে দাবি করেন। তার দাবি, হল ছাত্রলীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক রিডিংরুম কেন্দ্রিক সমস্যা সমাধানে জন্য রিডিংরুমে গেলে তাওসিফুল বের হয়ে আসেন এবং আজে বাজে কথা বলতে থাকেন।

এময় এক সিনিয়র তাকে ধরে ফেলেন এবং গালিগালাজ করলেন কেন জানতে চান। তখন তাওসিফের বাচনভঙ্গি ভাল না হওয়ায় তিনি জিজ্ঞাসা করেন সাংবাদিকতার পাওয়ার দেখাচ্ছেন আপনি?

এ স্বপক্ষে তার কাছে প্রমাণ আছে দাবি করলেও তুষার তাকে নির্দোষ প্রমাণ করার মতো কোনো তথ্য উপাত্ত সাংবাদিকদের সামনে উপস্থাপন করতে পারেননি। এর আগেও বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ছিনতাইয়ের এর সাথে জড়িত থাকায় তার নাম গণমাধ্যমে এসেছে। আরেক অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলাম বলেন, গত রাতে তেমন কিছু হয়নি। একটু কথা কাটাকাটি হয়েছে বলে দাবি তার।

এদিকে ভুক্তভোগীর দেওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে হাউজ টিউটর ড. আজহারুল ইসলামকে প্রধান করে আজ ৪ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হল প্রশাসন।




আরো






© All rights reserved © outlookbangla

Developer Design Host BD