শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:১৬ অপরাহ্ন




১০ ডিসেম্বর কী হবে, জানালেন মির্জা ফখরুল

আউটলুকবাংলা রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২২ ৩:৪৬ pm
Bangladesh Nationalist Party BNP Mirza Fakhrul Islam Alamgir বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
file pic

১০ ডিসেম্বর ঢাকার বিভাগীয় সমাবেশ থেকে সরকারবিরোধী সব দল মিলে কর্মসূচি দেবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন তথ্য জানান।

২০-দলীয় জোটের শরিক বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ওই সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন দলটির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম।

ফখরুল বলেন, ‘আগামী ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সমাবেশ সম্পর্কে পরিষ্কার করে নিই। এটা কিন্তু আমাদের বিভাগীয় সমাবেশের শেষ সমাবেশ। এখানে আমরা ভবিষ্যতে সব দল মিলে যেই কর্মসূচি, সেই কর্মসূচি নিয়ে সামনে আসব৷

‘আমরা ইতিমধ্যে অনেকগুলো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করেছি। আমরা ন্যূনতম বিষয়ে একমত হয়েছি। আশা করি এই বিষয়গুলোকে আমরা সামনে নিয়ে আসব। আমাদের পুরো দাবিদাওবা, রূপরেখা জনগণের সামনে নিয়ে আসব।’

গত ৮ অক্টোবর থেকে প্রতি শনিবার বিএনপি দেশের বিভিন্ন বিভাগে সমাবেশ করে আসছে। এর অংশ হিসেবে ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় জমায়েতের ডাক দেয়া হয়েছে। এই সমাবেশের স্থান নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।

বিএনপি সমাবেশ করতে চায় নয়াপল্টনে। তবে সরকার অনুমতি দিয়েছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে, যেখানে সমাবেশে রাজি নয় বিএনপি। ফখরুল সোহরাওয়ারাদী ও তুরাগ তীর ছাড়া অন্য কোথাও সমাবেশ করার প্রস্তাব চেয়েছেন।

চলমান আন্দোলন নিয়ে নিজে আশাবাদী বলেও জানান বিএনপি নেতা। বলেন, ‘মানুষ যেভাবে উঠে দাঁড়িয়েছে, যেভাবে কথা বলছে, রাস্তায় নেমে আসছে, তাতে করে আশাবাদী হবার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের পড়ন্ত জীবনে, জীবনসায়াহ্নে বলা যেতে পারে, আমরা আবার আশার আলো দেখতে পাচ্ছি।’

সরকারবিরোধী সব রাজনৈতিক দলের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলোর দায়িত্ব হচ্ছে জনগণের এই আন্দোলন সঠিক পথে নিয়ে যাওয়া। আর কোনো বিকল্প পথ নেই। কারণ, আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় এলে দেশের অস্তিত্ব থাকবে না।

‘আরেকটি দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে আমাদের জাতির মুক্তি সম্ভব হবে।’

আন্দোলনে জনগণ সরাসরি সম্পৃক্ত হয়েছে বলে দাবি করেন বিএনপি নেতা। বলেন, ‘মানুষের মুখের ভাষা, তাদের আগ্রহ, নিষ্ঠা এগুলো দেখলেই বোঝা যায় মানুষ এখন পরিবর্তন চায়৷ সেই পরিবর্তন হচ্ছে সত্যিকার অর্থে একটা কল্যাণকর রাষ্ট্র মানুষ দেখতে চায়। আমরা মানুষের চাওয়া-পাওয়া পূরণ করে সত্যিকারের একটি কল্যাণকর রাষ্ট্র উপহার দিতে চাই।’

ক্ষমতাসীন দলের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ পুরোপুরি জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তারা রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। তারা এখন আমলা আর গোয়েন্দার ওপর নির্ভরশীল। বিরোধী দলের আন্দোলন শুরু হলেই আওয়ামী লীগ মনে করে দুটি ধুয়া তুলতে হবে। একটি অগ্নি সন্ত্রাস আরেকটি জঙ্গি। দুটোই কিন্তু এখন মাটি হয়ে গেছে।’




আরো






© All rights reserved © outlookbangla

Developer Design Host BD