বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০১:২৩ অপরাহ্ন




সবার করের টাকায় মেট্রোরেল: অর্থমন্ত্রী

সবার করের টাকায় মেট্রোরেল: অর্থমন্ত্রী

আউটলুকবাংলা রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ৭:১৫ pm
EX Abu Hena Mohammad Mustafa Kamal Finance আবু হেনা মোহাম্মাদ মুস্তাফা কামাল লোটাস অর্থমন্ত্রী
file pic

সবার করের টাকায় মেট্রোরেল হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ মুস্তফা কামাল। তিনি এটিকে ‘মহাঅর্জন’ বলে অভিহিত করেছেন। রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে জাতীয় ট্যাক্সকার্ড ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের বুধবার সকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ী প্রান্তে বুধবার বেলা ১১টা ৪ মিনিটে মেট্রোরেলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উত্তরার দিয়াবাড়ী থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ কিলোমিটার পথে মেট্রোরেল লাইন নির্মাণ করা হচ্ছে। বুধবার উদ্বোধন হয় উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশের, যার দৈর্ঘ্য ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার।

মেট্রোরেল নিয়ে মুস্তফা কামাল বলেন, ‘আপনাদের করের টাকা দিয়ে আমরা আজ একটি মহাক্ষণ উপভোগ করতে যাচ্ছি।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের কিছু কাজ আছে তা উদযাপন করতে হবে। আপনাদের সবার সাহায্য নিয়ে এ সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে জাতীয় রাজস্ব খাতে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। প্রতি বছর ১৪ থেকে ১৫ শতাংশ আমাদের জিডিপিতে প্রবৃদ্ধি হয়।’

‘২০৪১ সালে আমাদের সব প্রত্যাশা পূরণ করতে পারব। ট্যাক্স দেয়া শুধু দায়িত্ব নয়, ভালো কাজও। এটা ভেবে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্য কাজ করব। এ দেশটি আমাদের। এ দেশের জন্য আমরা কাজ করব।’

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, ‘করদাতারা কর কেন দেবেন তাদের কাছে এই প্রশ্নটা সব সময় থাকে। এখন তারা নিশ্চয় দেখতে পাচ্ছেন। মেগা প্রকল্পগুলো এখন তাদের চোখের সামনে দৃশ্যমান।

‘এনবিআর মনে করে কর প্রদানের আইনগত বাধ্যবাধকতা থাকলেও করদাতাদের তাতে বাধ্য করা যাবে না। কর প্রদানে করদাতাদের স্বেচ্ছায় উদ্বুদ্ধ হবে। ভালোবাসার জালের মাধ্যমে কর প্রদানে উৎসাহী করতে হবে। এজন্য এনবিআর কর প্রদানে স্বচ্ছতা আনতে কাজ করছে। যেন আরও সহজে কর প্রদান করা সম্ভব হয়।

সেকেন্ডারি ডাটাবেজের মাধ্যমে সবার বিস্তারিত তথ্য নেয়ার চেষ্টা চলছে বলে জানান এনবিআর চেয়ারম্যান।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কাউছ মিয়াসহ ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য সেরা করদাতা হিসেবে মোট ১৪১ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ট্যাক্স কার্ডের জন্য মনোনীত করেছে। সেরা করদাতাদের মধ্যে ব্যক্তি ক্যাটাগরিতে ৭৬ জন, কোম্পানি ক্যাটাগরিতে ৫৩ প্রতিষ্ঠান এবং অন্যান্য ক্যাটাগরিতে ১২টি প্রতিষ্ঠানসহ মোট ১৪১টি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছেন।

ব্যবসায়ী ক্যাটাগরিতে হাকিমপুরী জর্দার স্বত্বাধিকারী হাজী মো. কাউছ মিয়া অন্য বছরগুলোর মতো ২০২১-২২ করবর্ষেও এনবিআরের সেরা করাদাতা হয়েছেন। তিনি সিনিয়র সিটিজেন ক্যাটাগরিতে এ সম্মাননা পেলেন। কোম্পানি পর্যায়ে টেলিকমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে সর্বোচ্চ করদাতার ট্যাক্স কার্ড পায় গ্রামীণফোন।

অন্যান্য ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন মো. নজরুল ইসলাম মজুমদার, মো. মনির হোসেন ও নাফিস শিকদার।

ব্যাংকিং ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে ইসলামী ব্যাংক, স্ট্যার্ন্ডার্ড চার্টাড ব্যাংকের বাংলাদেশ ব্রাঞ্চ, ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, দি হংকং অ্যান্ড সাংহাই ব্যাংকিং করপোরেশন (এইচএসবিসি) লিমিটেড।

নন-ব্যাংকিং ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে ইনফাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি লিমেটেড (ইডকল), আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স লিমিটেড।

ওষুধ ও রসায়ন ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, রেনেটা লিমিটেড, বেক্সিমকো লিমিটেড ও ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

চামড়াশিল্প ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে বাটা সু কোম্পানি, লালমাই ফুটওয়্যার লিমিটেড ও অ্যালায়েন্স লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার লিমিটেড।

অন্যান্য ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ লিমিটেড, সেখ আকিজ উদ্দিন, আমেরিকান লাইফ ইন্স্যুরেন্স ও মেঘনাঘাট পাওয়ার লিমিটেড।

প্রকৌশল ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে বাংলাদেশ মেশিন ট্যুলস ফ্যাক্টরি লিমিটেড, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড ও ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড।

খাদ্য ও আনুষঙ্গিক ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পায় অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, প্রাণ ডেইরি লিমিটেড ও স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড।

জ্বালানি ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, যমুনা অয়েল কোম্পানি লিমিটেড ও পেট্রোমেক্স রিফাইনারি লিমিটেড।

পাটশিল্প ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পায় আকিজ জুট মিলস লিমিটেড, আইয়ান জুট মিলস লিমিটেড ও রোমান জুট মিলস লিমিটেড।

স্পিনিং ও টেক্সটাইল মিলস ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে কোটস বাংলাদেশ লিমিটেড, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল লিমিটেড, নাহিদ কটন মিলস লিমিটেড, এসিএস টেক্সটাইল (বাংলাদেশ) লিমিটেড, বাদশা টেক্সটাইলস লিমিটেড, এপেক্স টেক্সটাইল প্রিন্টিং মিলস লিমিটেড ও এনজেড টেক্সটাইল লিমিটেড।

প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া লিমিটেড, সময় মিডিয়া লিমিটেড, টাইমস মিডিয়া লিমিটেড ও মিডিয়াস্টার লিমিটেড।

রিয়েল স্টেট ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে বে ডেভলপমেন্ট লিমিটেড, কনকর্ড রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড, বিল্ডিং টেকনোলজি অ্যান্ড আইডিয়াস লিমিটেড।

তৈরি পোশাক ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে স্কয়ার ফ্যাশন লিমিটেড, ইউনিভার্সেল জিন্স লিমিটেড, জাবের অ্যান্ড জোবায়ের ফেব্রিক্স লিমিটেড, রিফাত গার্মেন্টস লিমিটেড, প্যাসিফিক জিন্স লিমিটেড, স্নোটেক্স আউটওয়্যার লিমিটেড ও ইয়াংওয়ান হাইটেক স্পোর্টসওয়্যার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

অন্যান্য করদাতা পর্যায়ে চার ক্যাটাগরিতে ১২টি প্রতিষ্ঠান ট্যাক্স কার্ড পায়। এরমধ্যে ফার্ম ক্যাটাগরিতে মেসার্স এসএন করপোরেশন, মেসার্স ফখর উদ্দিন আলী আহমদ, মেসার্স মো. জামিল ইকবাল ও মেসার্স ছালেহ আহাম্মদ।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড। ব্যক্তিসংঘ ক্যাটাগরিতে সেনা কল্যাণ সংস্থা হেড অফিস ও বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট।

অন্যান্য ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছে আশা, বুরো বাংলাদেশ, ইউনাইটেড ডেভলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ ফর প্রোগ্রামড অ্যাকশন (উদ্দীপন) ও রিসোর্স ইন্টিগ্রেশন সেন্টার (রিক)।

ব্যক্তি পর্যায়ে ৭৬ জন পেয়েছেন ট্যাক্স কার্ড। তাদের মধ্যে সিনিয়র সিটিজেন ক্যাটাগরিতে মো. কাউছ মিয়া ছাড়াও সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন খাজা তাজমহল, ফজলুর রহমান, এম সাহাবুদ্দিন আহমেদ ও ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার বদরুল হাসান।

গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পান মো. নাসির উদ্দিন মৃধা, এ মতিন চৌধুরী, ডা. মো. আমজাদ হোসেন, মো. জয়নাল আবেদীন, লে. জেনারেল আবু সালেহ মো. নাসিম (অব.), চিকিৎসক ক্যাটাগরিতে ডা. জাহাঙ্গীর কবির, প্রফেসর ডা. একেএম ফজলুল হক, অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, ড. নার্গিস ফাতেমা ও ডা. এনএএম মোমেনুজ্জামান।

সাংবাদিক ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন ফরিদুর রেজা, মাহফুজ আনাম, মতিউর রহমান, শাইখ সিরাজ ও নঈম নিজাম। আইনজীবী ক্যাটাগরিতে শেখ ফজলে নূর তাপস, আহসানুল করিম, তৌফিকা আফতাব, ব্যারিস্টার নিহাদ কবির ও অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন।

প্রকৌশলী ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন মো. জহুরুল ইসলাম, প্রকৌশলী মো. মোখলেসুর রহমান ও মো. আব্দুল্লাহ। স্থপতি কাটাগরিতে মোহাম্মদ ফয়েজ উল্লাহ, এনামুল করিম নির্ঝর ও স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। অ্যাকাউন্ট্যান্ট ক্যাটাগরিতে মাশুক আহমেদ, মো. মোক্তার হোসেন ও রাকেশ সাহা এফসিএ।

খেলোয়াড় ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল খান ও কাজী নুরুল হাসান (সোহান)।

অভিনেতা-অভিনেত্রী ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন মাহফুজ আহমেদ, মেহজাবীন চৌধুরী ও পীযূষ বন্দোপাধ্যায়। কণ্ঠশিল্পী ক্যাটাগরিতে তাহসান রহমান খান, এস ডি রুবেল, কুমার বিশ্বজিৎ দে।

নারী ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন আনোয়ারা হোসেন, আমিনা আহমেদ, শাহনাজ রহমান, তাসনীম মাহমুদ ও পারভীন হাসান। প্রতিবন্ধী ক্যাটাগরিতে আকরাম মাহমুদ, ডা. মো. মামুনুর রশিদ ও লুবনা নিগার।

বেতনভোগী ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন মোহাম্মদ ইউসুফ, রুবাইয়াৎ ফারজানা হোসেন, হোসনে আরা হোসেন, লায়লা হোসেন ও এম এ হায়দার হোসেন।

তরুণ ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন সাফওয়ান সোবহান, আসিফ ইকবাল মাহমুদ, নাসিরুউদ্দিন আক্তার রশীদ, রাইসা সিগমা হিমা ও রবিন রাজন সাখাওয়াত।

ব্যবসায়ী ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন গোলাম দস্তগীর গাজী, এস এম শামছুল আলম, মো. মাহবুবুর রহমান, গাজী গোলাম মূর্তজা ও এস এম আশরাফুল আলম।

নতুন করদাতা ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন এরিক এম ওয়াকার, ওবায়দুল ইসলাম কিরণ, নাজমা আক্তার, লুইস এনরিকে ম্যায়োর্গা, জুমারা বেগম, সাকেব মোহাম্মদ আলী ও সাদরুদ্দিন উদ্দিন আহসান আলী।

ট্যাক্স কার্ড পাওয়া ব্যক্তিরা রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন সুবিধা পাবেন। তাদের জন্য বরাদ্দ রাখা হবে বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জ, তারকা হোটেলসহ সব আবাসিক হোটেল বুকিংয়ে অগ্রাধিকার। পাশাপাশি কার্ডধারী নিজে ও তার স্ত্রী বা স্বামী, নির্ভরশীল সন্তানের চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে কেবিন সুবিধা প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকার পাবেন। থাকবে আকাশ, রেল ও জলপথে সরকারি যানবাহনে টিকিট প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকার এবং জাতীয় অনুষ্ঠান, সিটি করপোরেশন, পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকার কর্তৃক আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ।




আরো






© All rights reserved © outlookbangla

Developer Design Host BD