শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১১:৪৫ অপরাহ্ন




অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিংয়ের ৭ লাখ গ্রাহকের ৫২% নারী

আউটলুকবাংলা রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৮ মার্চ, ২০২৩ ৩:৫৬ pm
Agrani Bank অগ্রণী ব্যাংক অগ্রণী
file pic

এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রমের মাধ্যমে ব্যাংক বহির্ভুত প্রায় ৭ লাখ মানুষকে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির আওতায় নিয়ে এসেছে অগ্রণী ব্যাংক। বাংলাদেশে প্রথম এজেন্ট ব্যাংকিং কনসেপ্ট নিয়ে আসা দুয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে দেশের ৬১ জেলার ২৮০টি উপজেলায় ৬০০ আউটলেটের মাধ্যমে ওই সেবা পৌছে দিচ্ছে রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকটি। অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিংয়ের আউটলেটগুলোতে এ পর্যন্ত যে ৭ লাখ অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে তার অর্ধেকের বেশি অর্থাৎ ৫২ শতাংশ গ্রাহকই নারী।

তাছাড়া ২০২২ সালে ১০০ জন নারী গ্রাহক অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিং আউটলেট থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসা শুরু করে সফলতা অর্জন করেছেন। সফল নারী উদ্যোক্তা এবং দুয়ার ব্যাংকিং এর নারী এজেন্ট, কর্মী এবং নারী গ্রাহকদের আরও উৎসাহিত করতে এবং তার প্রতি সম্মান জানাতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়।

সোমবার অগ্রণী ব্যাংকের বোর্ড রুমে আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২৩ কে সামনে রেখে ‘অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিং নারী উদ্যোক্তা সম্মাননা’ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক রুবানা পারভীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের পরিচালক তানজিনা ইসমাইল।

সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক রেজিনা পারভীন, পারভীন আকতার, মহাব্যবস্থাপক (সিআইটিও) মো. শাহীনূর রহমান। দুয়ারের কর্মকর্তা, বিভিন্ন বিভাগের নারী নির্বাহী এবং সম্মাননা প্রাপ্ত দুয়ার ব্যাংকিং-এর নারী এজেন্ট ও ঋণগ্রহীতা উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণে প্রাণবন্ত ওই আয়োজনে বক্তারা নারী সমতা ও ক্ষমতায়নের যৌক্তিকতা তুলে ধরে নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য, বিরূপতা বিলোপ করে নারীর অগ্রযাত্রাকে আরও বেগবান করার আহ্বান জানান।

অন্য যেকোনো ব্যবসার তুলনায় এজেন্ট ব্যাংকিং অনেক চ্যালেঞ্জিং এবং কঠিন একটি কাজ উল্লেখ করে তারা বলেন, তা সত্বেও বিস্তৃর্ণ এলাকার হাজার হাজার গ্রাহককে খুব সহজে অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিং-এর মাধ্যমে ব্যাংকিং সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

আলোচনায় ভবিষ্যতে শুধুমাত্র নারীদের পরিচালনায় নারী গ্রহকদের জন্য নিয়োজিত দুয়ার ব্যাংকিং আউটলেট করার প্রস্তাবনাও উঠে আসে। পাশাপাশি নারী উদ্যোক্তারা তাদের সংগ্রামের গল্প ও গৌরবগাথা তুলে ধরেন। এ ধরনের স্বীকৃতি নারীর ক্ষমতায়ন ও নারীবান্ধব ব্যবসায়িক পরিবেশ গড়ে তুলতে ও দেশের আরও অনেক নারীকে ব্যাংকিং ব্যবসায় অনুপ্রাণিত করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

প্রধান অতিথি তানজিনা ইসমাইল তার বক্তব্যে নারীদের নিজ উদ্যোগে স্বাবলম্বী হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি আরও বলেন, সুযোগ ও সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে আমাদের মা-বোনেরা তাদের দক্ষতা, ইনোভেটিভ চিন্তা-ভাবনা দিয়ে কাজ করে তার প্রমাণ দিচ্ছেন। আমি সর্বাঙ্গে অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিং-এর সফলতা কামনা করছি। সভাপতির বক্তব্যে রুবানা পারভীন নারীদের যেকোনো ধরনের চ্যালেঞ্জ শক্ত হাতে মোকাবিলা করার আহ্বান ও সম্মাননা প্রাপ্ত সকলকে অভিনন্দন জানান।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, অগ্রণী ব্যাংক ও দুয়ারের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ব্যাংকিং সেবা আরও সহজ ও সাশ্রয়ী করার লক্ষ্যে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দিতে অগ্রণী দুয়ার ব্যাংকিং কাজ করছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে বিশেষত: ব্যাংকিং বহির্ভুত জনগোষ্ঠীকে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে দুয়ার ব্যাংকিং সকল প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও নিরাপত্তার সঙ্গে সরকারি প্রণোদনা, বিভিন্ন প্রকার ভাতা, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী ভাতার পাশাপাশি সকল ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে যাচ্ছে।




আরো






© All rights reserved © outlookbangla

Developer Design Host BD