রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন




কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বাংলাদেশের কাছে সহায়তা চাইল ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তুরস্ক

আউটলুকবাংলা রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩ ৬:৫৮ pm
Ankara Turkey President Recep Tayyip Erdoğan তুর্কি ইস্তাম্বুল তুরস্ক প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ তাইয়িপ এরদোয়ান এরদোগান
file pic

ভূমিকম্পে পর্যুদস্ত তুরস্ক সহায়তার অংশ হিসেবে বাংলাদেশের কাছ থেকে খাদ্য সামগ্রী ও ঔষধ চেয়েছে। তবে দেশটি নগদ কোনো অর্থ সহায়তা নেবে না।

ঢাকায় নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁর দপ্তরে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। ভয়াবহ ভূমিকম্পে তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলে সৃষ্ট মানবিক সংকটের প্রেক্ষাপটে দূতাবাসে ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বলেন, ‘ভূমিকম্পে ছয় হাজার ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ভয়াবহ এক ভূমিকম্পে বাংলাদেশের সহায়তা চাই আমরা।’

তিনি বলেন, তুরস্কের ১০টি প্রদেশে ভূমিকম্প হয়েছে। ওই ভূমিকম্পে বাংলাদেশ সরকার খুব দ্রুত সাড়া দিয়েছে। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শোকবার্তা পাঠিয়েছেন। বাংলাদেশ জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রেখেছে। তুরস্কের রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘এতে আমরা চির কৃতজ্ঞ।’

রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ থেকে সহায়তা সামগ্রী নিতে চাই। আমাদেরকে শীতের কাপড়, ওষুধ, শুকনো খাবার ইত্যাদি সহায়তা দিতে পারেন। ঢাকার টার্কিশ কোঅপারেশন অ্যান্ড কোঅর্ডিনেশন এজেন্সি-টিকা অফিস এসব সহায়তা নেবে। তারা এসব সামগ্রী তুরস্কে পাঠাবে।’

তিনি জানান, টিকা অফিস কোনো নগদ অর্থ সহায়তা নেবে না। কেননা এখানে তাঁদের কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই। সে কারণে অর্থ পাঠাতে জটিলতা তৈরি হবে। তাই টিকা অফিস নগদ অর্থ সহায়তা নেবে না।

গত সোমবার ভোর রাতে তুরস্ক ও সিরিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকায় ৭ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। এতে তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চল এবয় সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ব্যাপক ধ্বংযজ্ঞ হয়েছে। ভূমিকম্পে শুধু তুরস্কেই ১৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর দুই দেশ মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ১৭ হাজার ৫১৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ধ্বংসস্তূপ সরানোর সঙ্গে সঙ্গে একের পর এক লাশ বেরিয়ে আসছে।

এদিকে আরও ভূমিকম্পের ভয়ে বাসায় ফিরছে না লোকজন। লাখ লাখ মানুষ খোলা আকাশের নিচে আশ্রয় নিয়েছেন। ঘর–বাড়ি হারানো মানুষের জন্য জরুরি খাদ্য সহায়তা পৌঁছানো এখন চ্যালেঞ্জ হয়ে দেখা দিয়েছে।




আরো






© All rights reserved © outlookbangla

Developer Design Host BD